বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নারী শামিমা বেগমের দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি রেখছে যুক্তরাজ্যের আদালত। স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে আদালত এ রায়ে দেয়।

আদালত জানায়, ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শামিমাকে সিরিয়া থেকে দেশে ফিরতে না দেওয়ার ব্যাপারে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেটি আইনত সঠিক পদক্ষেপ। তাই যুক্তরাজ্যের নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য আইনি পদক্ষেপ নিতে পারবেন না তিনি।

এ রায়ের ফলে আপাতত শামিমার যুক্তরাজ্যে প্রবেশের পথ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এর আগে শামীমার বাংলাদেশি নাগরিকত্ব না থাকায় তাকে দেশে প্রবেশের অনুমতি দেয়নি বাংলাদেশও।

পূর্ব লন্ডনের বাসিন্দা কিশোরী শামিমা বেগম ২০১৫ সালে তিন বান্ধবীর সঙ্গে সিরিয়া গিয়ে আইএস জঙ্গিদের সঙ্গে যুক্ত হয়। আইএসবিরোধী অভিযানে জঙ্গিদের পতনের পর থেকে সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর শরণার্থী শিবিরে রয়েছে ২১ বছর বয়সী এই নারী।

দুবছর আগে যুক্তরাজ্যে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করে শামিমা। জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কারণে তার আবেদন প্রত্যাখ্যান করে নাগরিকত্ব বাতিল করে দেন তৎকালীন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভেদ।

এরপর সুপ্রিম কোর্টে নিজের নাগরিকত্ব ফিরে পেতে আবেদন করেন শামিমা। তবে এবারও জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বিবেচনায় তাকে দেশে ফিরতে না দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।