দশক শেষ হওয়ার কিছুদিন আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) প্রকাশ করেছে তিন ফরম্যাটের দশকসেরা দল। ওয়ানডে দলে আছেন সাকিব আল হাসান।

টেস্ট ও টি-টোয়েন্টির দলে বাংলাদেশের কেউ-ই জায়গা পাননি। তিন ফরম্যাটের নারী দলে জায়গা হয়নি কোনো বাংলাদেশির।

আইসিসির ভোটিং প্যানেলের সাবেক ক্রিকেটার ও ক্রিকেট সাংবাদিকদের ভোটে নির্বাচিত হয়েছে স্কোয়াডগুলো। ২০১১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত পারফর্ম্যান্সের ভিত্তিতে প্যানেল ভোট দিয়েছেন খেলোয়াড়দের।

দশকের সেরা ওয়ানডে একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ছাড়াও স্কোয়াডে জায়গা হয়েছে ভারতের তিনজনের। অধিনায়ক ও উইকেট কিপার মহেন্দ্র ধোনি ছাড়াও আছেন রোহিত শর্মা ও ভিরাট কোহলি।

অস্ট্রেলিয়া ও সাউথ আফ্রিকা থেকে আছেন দুই জন করে। মিচেল স্টার্ক ও ডেভিড ওয়ার্নারকে রাখা হয়েছে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের থেকে।

মিস্টার থ্রি সিক্সটি এবি ডি ভিলিয়ার্স ও লেগস্পিনার ইমরান তাহির আছেন সাউথ আফ্রিকা থেকে।

সাকিব ছাড়াও অলরাউন্ডার হিসেবে আছে ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস। নিউজিল্যান্ড থেকে আছেন লাসিথ মালিঙ্গা। নিউজিল্যান্ড থেকে ডাক পেয়েছেন ট্রেন্ট বোল্ট।

টেস্ট দলে চারজন আছেন ইংল্যান্ডের। ওপেনার অ্যালিস্টার কুকের সঙ্গে আছেন বেন স্টোকস, স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসন।

অস্ট্রেলিয়া থেকে আছেন স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। ভারত থেকেও দুই জন কোহলি ও রভিচন্দ্রন আশউইন। টেস্ট দলের অধিনায়ক নির্বাচন করা হয়েছে কোহলিকে।

নিউজিল্যান্ড থেকে নির্বাচিত হয়েছে কেইন উইলিয়ামসন। সাউথ আফ্রিকা থেকে আছেন ডেল স্টেইন। উইকেটকিপার হিসেবে আছেন শ্রীলংকান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা।

টি-টোয়েন্টি একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন চার ভারতীয়। সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটেও অধিনায়ক ও উইকেটকিপার থাকছেন মহেন্দ্র ধোনি। আছেন কোহলি, জাসপ্রিত বুমরাহ ও রোহিত শর্মা। দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল থেকে আছেন ক্রিস গেইল ও কাইরন পোলার্ড।

অস্ট্রেলিয়া থেকে জায়গা হয়েছে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও অ্যারন ফিঞ্চের। সাউথ আফ্রিকা থেকে আছেন ডি ভিলিয়ার্স। শ্রীলংকা ও আফগানিস্তান থেকে আছেন রাশিদ খান ও মালিঙ্গা।