হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে পুলিশ ও হেফাজত কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৫ পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় হেফাজত কর্মীরা পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যান ভাঙচুর করে এবং দুটি মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

রোববার (২৮ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে আজমিরীগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কের নোয়াগড় এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানায়, আজমিরীগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কের নোয়াগড় এলাকায় হেফাজত ইসলামের সমর্থকেরা রাস্তায় ব্যরিকেড দিয়ে রাখে। এ সময় পুলিশ তাদের বাঁধা দিলে হেফাজত সমর্থকরা পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুড়তে থাকে। এক পর্যায়ে তারা দেশিয় বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। এ সময় তারা পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যান ভাংচুর ও দুটি মোটরসাইকেলে আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

হেফাজত সমর্থকদের হামলায় আহত হন, আজমিরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলামসহ আরো ৫ পুলিশ সদস্য।

এক পর্যায়ে হেফাজত সমর্থরা মাইকে ঘোষণা দিয়ে আবারও পুলিশের উপর হামলা চালায়। ৩৩ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এক পর্যায়ে হেফাজত কর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

এ ব্যপারে আজমিরীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আবু হানিফ জানান- হেফাজত কর্মীদের হামলায় ওসি নুরুল ইসলামসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।