দিনরাত সেন্ট্রাল ডেস্ক : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ড নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলের উদ্বেগ অহেতুক ও শিষ্টাচার বহির্ভূত, এটা বন্ধ হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

আবরার হত্যার ঘটনায় জাতিসংঘের বিবৃতি প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটা অহেতুক প্রতিক্রিয়া। আপনারা দেখুন সম্প্রতি নিউইয়র্কে ৪ জন মারা গেল, ৮ জন আহত হয়েছে। কিছুদিন আগে টেক্সাসে একজন খুন হলেন। এসব তো সরকার মারছে না। নিউইয়র্কের হত্যাকারীকে তো ধরতেই পারেনি। এ সব বিষয় নিয়ে জাতিসংঘ বক্তব্যে দেয় না।

তিনি বলেন, স্কুলের কত বাচ্চাকে মেরে ফেললো কিন্তু জাতিসংঘ কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি। বাংলাদেশে একটা দুর্ঘটনা ঘটেছে। সরকার এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রথম দিনেই বলেছে এই দুষ্টু লোকদের বিচার করে শাস্তি দেওয়া হবে।

আবরার হত্যা নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলের উদ্বেগ অহেতুক ও শিষ্টাচার বহির্ভূত, এটা বন্ধ হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ড. মোমেন বলেন, নিউজিল্যান্ডে ৫১ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এ জন্য আমরা দুঃখ প্রকাশ করেছি। তাই বলে আমরা নিউজিল্যান্ড সরকার বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দায়ী করে বিবৃতি দেইনি। কিন্তু এখানে বিবৃতি দেখে মনে হচ্ছে দায়ী করার একটা প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এটি অবশ্যই বন্ধ করতে হবে।

গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এ ঘটনায় গত ৯ অক্টোবর জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারীর দপ্তর থেকে দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়, মতপ্রকাশের অভিযোগে বুয়েটের এক শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনায় জাতিসংঘ নিন্দা জানাচ্ছে। মতপ্রকাশের স্বাধীনতা চর্চার জন্য কাউকে হয়রানি, নির্যাতন ও হত্যা করা উচিত নয়।