দিনরাত ডেস্ক : গত মাসের মাঝামাঝিতে মৃদু ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে উত্তরাঞ্চলসহ বেশ কয়েকটি জেলার ওপর দিয়ে। এখন শীতের দাপট নেই। তবে আবার দাপুটে মেজাজ নিয়ে শীত ফিরছে শিগগিরই।

চলতি মাসেই দেশে তিনটি শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। এর প্রথমটি শুরু হচ্ছে দুই-একদিনের ভেতর।

আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য বলছে, রোববারের পর থেকে দেশে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে। তখন তাপমাত্রা কমতে শুরু করবে। পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় এখনো সর্বনিম্ন তাপমাত্রা, আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ঢাকায়।

আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি মাসে (জানুয়ারি) স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চল, পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ঘন কুয়াশা ও মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। দুটি শৈত্যপ্রবাহ তীব্র হবে এই মাসেই। ওই সময় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে।

এর আগে গত ২ জানুয়ারি আবহাওয়া দপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছিলেন, শৈত্যপ্রবাহ ও বৃষ্টির কারণে বোরো ধানের বীজতলার ক্ষতি হতে পারে।

একইদিন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিলেন, শৈত্যপ্রবাহের প্রস্তুতি অনুযায়ী সরকারের পক্ষ থেকে ৬৪ জেলার জন্য ৩২ লাখ কম্বল বরাদ্দ করা হয়েছে। এর মধ্যে ত্রাণ মন্ত্রণালয় সাত লাখ ২১ হাজার ৮০০ এবং প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণভাণ্ডার থেকে ২৪ লাখ ৬৯ হাজার ১০০ কম্বল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এর বাইরে নগদ টাকা ও শুকনো খাবারও বরাদ্দ দেয়া হয়েছে