দিনরাত প্রতিনিধি, ইবি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিভাগ ফুটবল প্রতিযোগিতায় রেফারিকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে ক্যাম্পাসের ফুটবল মাঠে এ ঘটনা ঘটে। খেলায় রেফারির সিন্ধান্ত নিয়ে মতবিরোধ দেখা দিলে ইংরেজি বিভাগের খেলোয়াড়রা রেফারি রবিউল ইসলামকে মারধর করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্যাম্পাস সূত্রে, সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ক্যাম্পাসের ফুটবল মাঠে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিভাগ ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইনাল পর্ব শুরু হয়। এতে ইংরেজি বিভাগের সাথে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ অংশ নেয়। এক পর্যায়ে পেনাল্টির সুযোগ পায় ইতিহাস বিভাগ। রেফারির এ সিন্ধান্তে তাৎক্ষণিক মাঠে জটলা সৃষ্টি হয়। এ সিন্ধান্তের বিরোধীতা করে মাঠ ত্যাগ করে ইংরেজি বিভাগের দল। পরে ওই বিভাগের শিক্ষকদের সহযোগিতায় পুণরায় খেলায় অংশ গ্রহন করে তারা। ঘটনারপর ওই রেফারিকে পরিবর্তন করে কর্তৃপক্ষ। পরে রেফারি রবিউল ইসলাম ক্যাম্পাস ত্যাগ করে। এসময় ইংরেজি বিভাগের খেলোয়াড়রা তাকে ধাওয়া দেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক এলাকায় রেফারিকে বেধড়ক মারধর করে ইংরেজি বিভাগের খেলোয়াড় ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মিজান, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শুভ, ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের নিশাতসহ বেশ কয়েকজন রেফারির উপর চড়াও হয়। পরে রেফারিকে নিরাপদে নেয় শিক্ষার্থীরা। এদিকে ঘটনা জানার পরে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থীরা মিজান, শুভ ও নিশাতকে মারধর করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মন সাংবাদিকদের বলেন,‘খেলায় যা ঘটেছে তা সত্যি দুঃখজনক। ক্রিড়া বিভাগে একটি আপিল কমিটি করা হয়েছে। ওই কমিটির তাদের মতামতের উপর ভিত্তি করে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।’