বিশেষ পরিস্থিতিতে পরীক্ষা ছাড়াই ফল প্রকাশের সুযোগ রেখে সংসদে পাস হয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বিল-২০২১।

রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পর দুই দিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত গেজেট প্রকাশ হবে। এরপর ঘোষণা করা হবে এইচএসসির ফল।

জাতীয় সংসদে রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বিলটি উত্থাপনের পর এটি পাস হয়।

আইন সংশোধনের মধ্য দিয়ে পরীক্ষার্থীদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের গড় করে এইচএসসির ফল প্রকাশ করা হবে। জেএসসি-জেডিসির ফলকে ২৫ এবং এসএসসির ফলের মানকে ৭৫ শতাংশ ধরে এইচএসসির ফল ঘোষিত হবে।

এ বছরের ২২ মার্চ এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে সেটি প্রথমে স্থগিত হয়। পরে পরীক্ষা আর না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

৭ অক্টোবর এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে শিক্ষামন্ত্রী জানান, পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষার মতো ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হবে না।

এবার এইচএসসি ও সমমানে নিয়মিত পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৮৯ জন। আগে উত্তীর্ণ হয়ে ভালো ফলের জন্য পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা ছিল আরও এক লাখ ৬৭ হাজার ২৭ জনের।