দিনরাত প্রতিবেদক : সিলেটের জনপ্রিয় নাট্য অভিনেতা কটাই মিয়া। তার প্রকৃত নাম হচ্ছে সাহেদ মোশারফ। দীর্ঘ অনেক বছর ধরে তিনি সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় নির্মিত নাটকে কাজ করে কটাই মিয়া নামে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন সিলেট তথা সারাদেশে। এছাড়াও যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডাসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রেও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি। পেয়েছেন বিভিন্ন সংস্থা থেকে পুরষ্কার। তিনি তার খ্যাতি আর সিলেটের আঞ্চলিক ভাষার সংস্কৃতি ধরে রাখতে করে যাচ্চেন একেরপর এক নতুন নাটক। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় নির্মিত হচ্ছে নতুন নাটক ‘চুকলখোর’।

এই নাটকে কটাই মিয়ার সাথে দেখা মিলবে নবীগঞ্জের তরুণ সাংবাদিক সুমন আলী খাঁনের। তিনি অনেক দিন যাবত সাংবাদিকতার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কাজ করার সুবাদে সিলেটের কটাই মিয়ার সাথে ভাল সম্পর্ক স্থাপন হয়। যার মাধ্যমে কটাই মিয়ার হাত ধরে নাট্যাঙ্গনে এই প্রথম। সাহেদ মোশারফের রচনা ও বিশ্বজিৎ সরকারের পরিচালনায় ‘চুকলখোর’ নামক নাটকে অভিষেক হয়েছে সুমনের।

সাংবাদিক সুমন জানান- সাহেদ মোশারফ তার অভিভাবক ও বড় ভাইর মতো। যেহেতু সাহেদ মোশারফ’র হাত ধরে নাটকে অভিষেক হয়েছে। সেহেতু তার কোন কাজে পিছুপা না করে এগিয়ে যেতে চান সুমন।

সুমন তার আগামীর সাফল্যের জন্য সকলের নিটক দোয়া চেয়ে বলেন- শ্রোতা-দর্শন নাটকের প্রাণ। কেননা তাদের পাওয়া সাড়া ভালো কাজ করার মতো শক্তি জোগায়। তাদের মতামত নাটকের মান নির্ণয় করে। তাই আমিও তার ব্যতিক্রম নয়। আমি চাই সকলের ভালবাসা নিয়ে এগিয়ে যেতে।

সিলেটের জনপ্রিয় নাট্য অভিনেতা কটাই মিয়া বলেন- আমি দীর্ঘদিন যাবৎ সিলেটের সাংস্কৃতি ধরে রাখার জন্য নিয়মিত সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় নাটক নির্মাণ করে চলেছি। শ্রোতা মহলের ভালবাসা আমাকে সাধারণ একজন নাট্য শিল্পী থেকে আজকের এই কটাই মিয়া খ্যাতি দিয়েছে। আমি তাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ।