দিনরাত ডেস্ক : চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা অর্ধশতাধিক ছাড়িয়েছে। একইসঙ্গে ভয়াবহ এই ভাইরাসে ২ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, চীনের ১৩টি শহরে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাসে। পরিসংখ্যান বলছে কমপক্ষে ৩৭ মিলিয়ন মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় সম্ভাবনা রয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) উদ্বেগ প্রকাশ করে এক বিবৃতিতে জানায়, উহান প্রদেশে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি বিবেচনায় জরুরি অবস্থা জারি করা প্রয়োজন।

এরইমধ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে পরবর্তী দশদিনের মধ্যে নতুন হাসপাতাল তৈরি করার ঘোষণা দিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। ফেব্রুয়ারি মাসের ৩ তারিখ থেকে ওই হাসপাতালে আক্রান্তরা চিকিৎসা নিতে পারবে বলেও জানানো হয়।

এদিকে ইউরোপের দেশ ফ্রান্সেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দুজনই সম্প্রতি চীন ভ্রমণ করেছেন।

চীনা কর্তৃপক্ষ স্বীকার করেছে, ভাইরাসটি প্রতিরোধ এবং নিয়ন্ত্রণে তারা এখন নাজুক অবস্থায় রয়েছে। এর আগে চীন নিশ্চিত করেছিলো যে, মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস যা ইতোমধ্যে ছোঁয়াচে আকার ধারণ করছে।

ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাবের শুরুর দিকে চীনের স্বাস্থ্য কমিশনের উপমন্ত্রী লি বিন বলেছিলেন, তাদের কাছে এমন প্রমাণ রয়েছে যে এই রোগটি শ্বাসনালীর মাধ্যমে মূলত সংক্রামিত হয়েছিল। তবে চীন এখনও ভাইরাসটির সঠিক উত্স নিশ্চিত করতে পারেনি।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালে চীনে এক মরণঘাতী ভাইরাসে আট হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়ে ৭৭৪ জনের মৃত্যু হয়।