দিনরাত সেন্ট্রাল ডেস্ক : কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল থেকে গাঁজা সেবনরত দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ তিন শিক্ষার্থীকে আটক করেছে হল প্রশাসন। তাদের কাছ থেকে মাদকদ্রব্যও উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় হলের ৫০৬ নম্বর কক্ষ থেকে হল তাদের আটক করা হয়।

আটক তিনজন হলেন- বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক ও বাংলা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী জসীম উদ্দিন বিজয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পরিসংখ্যান বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সজীব কুমার কর এবং একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী খলিলুর রহমান শিবলু। তাদের কেউই বঙ্গবন্ধু হলের বৈধ শিক্ষার্থী নন বলে জানা গেছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ মো. জিয়া উদ্দিন বলেন, নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে ৫০৬ নম্বর কক্ষ থেকে গাঁজার গন্ধ পাওয়া যায়। এরপর ওই কক্ষে সজীব, শিবলু ও বিজয়কে নেশাগ্রস্ত এবং অস্বাভাবিক অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের কক্ষ থেকে গাঁজা, একটি হাতুড়ি, তিনটি বন্ধ ফোন উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, এই কক্ষের বিরুদ্ধে আগেও বিভিন্ন অভিযোগ ছিল। অভিযান শেষে আমরা প্রক্টরিয়াল বডিকে বিষয়টি অবগত করি। একই সঙ্গে ওই কক্ষটিকে সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

তবে এসব বিষয় অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা জসীম উদ্দিন বিজয় বলেন, আমি মাদকের সঙ্গে জড়িত নই। আমি আমার কক্ষ (৫০৮) থেকে পাশের কক্ষে (৫০৬) প্রায়ই যাই। এদিকে ছাত্রলীগ নেতা সজীব কুমার করকে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ বলেন, ঘটনা শুনেই তাৎক্ষণিকভাবে সজীব কুমার করকে শাখা ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার এবং জসীম উদ্দিন বিজয়ের পদ স্থগিত করেছি। মাদকের ব্যাপারে আমরা সবসময় জিরো টলারেন্সে বিশ্বাসী। এ বিষয়ে যেকোনো অভিযানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সহযোগিতা করব।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর নাসির হোসেন বলেন, হল প্রশাসন থেকে আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিস্তারিত তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।