ইসরায়েলিদের সন্ত্রাসী হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত ফিলিস্তিনের মানুষের পাশে দাড়াতে উপহার হিসেবে ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী পাঠাচ্ছে সুনামগঞ্জের কয়েকজন তরুণ। তারা এ কার্যক্রমের নাম দিয়েছে হেল্প ফিলিস্তিন, সুনামগঞ্জ বাংলাদেশ।

গেল ২০ মে রাতে ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের মধ্যে চলমান যুদ্ধের বিরতির সিদ্ধান্ত হওয়ার পর থেকে যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত পাশে দাড়াতে ২৫ মে থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও সুনামগঞ্জের কর্মরত চিকিৎসকদের পরামর্শ এবং সহযোগিতায় প্রায় দেড় লক্ষ টাকার ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী ব্যবস্থা করে তারা। যেখানে রয়েছে প্রায় ১৫-১৬ রকমের বিভিন্ন ওষুধ।

তরুণদের সাথে কথা হলে তারা জানায়, কলেজছাত্র ইয়াছির আহমদ জাওয়াদের উদ্যোগে এ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন সুনামগঞ্জের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সাথে জড়িত কয়েকজন। ফিলিস্তিন দূতাবাসের পাঠানো ওষুধের তালিকা অনুযায়ী প্রায় দেড় লক্ষ টাকার ওষুধ সামগ্রী ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে সংগ্রহ করেন তারা। ওষুধ সামগ্রী নিয়ে শনিবার রাতেই ঢাকাস্থ ফিলিস্তিন দূতাবাসে যাবে এ তরুণ দলটি।

কার্যক্রমের উদ্যোক্তা সুনামগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র ইয়াছির আহমদ জাওয়াদ বলেন, যুদ্ধে সে দেশের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, ফেইসবুক ও টেলিভিশনে আমরা তাদের অবস্থা দেখেছি আমার মাথা আসলো আমরা বন্ধু বড় ভাইরা মিলে যদি কিছু করতে পারি কি না, আল্লাহর রহমতে আমরা সবাই মিলে বড় কিছু করতে পারিনি কিন্তু তাদের জন্য কিছু ওষুধ সামগ্রী উপহার হিসেবে পাঠাচ্ছি আমরা।

সুনামগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকর্মী জিহান জোবায়ের বলেন, আমাদের কার্যক্রমটিতে দূতাবাস আমাদের সহযোগিতা করেছে আমরা তাদের সাথে যোগাযোগ করি এবং তারা আমাদের প্রয়োজনীয় প্রায় ২০০ রকমের ওষুধের তালিকা পাঠালে আমরা আমাদের ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ১৫-১৬ রকমের ওষুধ পাঠাচ্ছি। এছাড়াও আমরা তাদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক দিচ্ছি। আমরা তাদের পাশে থাকতে পারছি সেটাই অনেক বড় পাওয়া আমাদের৷ আমরা যাই ক্ষতিগ্রস্ত ফিলিস্তিন যেন দ্রুতই দাঁড়িয়ে উঠতে পারে।

সুনামগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকর্মী ইফতেখার সাজ্জাত পিয়াল বলেন, আমাদের কার্যক্রম সফল হয়েছে সুনামগঞ্জের ডাক্তারদের সহযোগিতায় আমরা ওষুধগুলো সুন্দরভাবে পেয়েছি এছাড়া আমাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া পোস্টের বিকাশ নাম্বার ও জেলায় বিশিষ্ট কয়েকজনের সহযোগিতায় আমরা অনেক দামি ওষুধগুলো কিনতে পেরেছি তাদের জন্য। আমরা ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রীগুলো নিয়ে শনিবার রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়া দিব।

এছাড়া এ কার্যক্রমে রয়েছেন, সুনামগঞ্জের তরুণ সাংস্কৃতিক কর্মী নাজমুন নূর শ্রেষ্ঠ, লিওন চৌধুরী, তানভীর সিদ্দিক, আমিনুল নাঈম, তাহমিদ আহমদ সামী।