হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে চা বাগানে নিয়ে এক শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে প্রতিবেশী এক ব্যক্তি। এ ঘটনায় অভিযুক্ত জয়নাল মিয়াকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে মামলা দায়েরের পর শুক্রবার ভোরে চুনারুঘাট থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত জয়নাল মিয়া উপজেলার উসমানপুর গ্রামের মৃত রফিক মিয়ার ছেলে। সে দুই সন্তানের জনক এবং তার বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক মামলা রয়েছে।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, শিশুর মা ও জয়নাল মিয়া দুসম্পর্কের ভাই-বোন এবং একই এলাকার বাসিন্দা। শিশুর মা ওলিপুরের একটি কোম্পানিতে চাকুরি করেন। চাকুরির সুবাদে শিশুর মা ওলিপুরে থাকেন।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি শিশুটি মাদ্রাসা থেকে ছুটি নিয়ে মায়ের কাছে ওলিপুরে যায়। সেখানে একদিন থাকার পরদিন ২০ ফেব্রুয়ারি সকালে শিশুটিকে মাদ্রাসায় পৌঁছে দেয়ার কথা বলে মোটরসাইকেল যোগে মায়ের কাছ থেকে নিয়ে যায় জয়নাল। কিন্তু সে মাদ্রাসায় না নিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে শিশুকে আড়ংবিলের পশ্চিমে নালুয়া চাবাগানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে মারপিট করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই শিশুকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে সে নিজেই। খবর পেয়ে শিশুটির মা হাসপাতালে ছুটে যান।

চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটির মা বাদি হয়ে চুনারুঘাট থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে জয়নালকে গ্রেপ্তার করে।
পুলিশ জানায়, জয়নালের বিরুদ্ধে এর আগেও ধর্ষণ, মাদক ও ডাকাতিসহ ৪টি মামলা রয়েছে।

চুনারুঘাট থানার ওসি মো. আলী আশরাফ জানান, শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করে অভিযুক্ত জয়নালকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।