সিলেটের জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদের ফলাফল ও গেজেট স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একই সাথে আগামী এক মাসের মধ্যে পুনরায় ভোট গণনার নির্দেশও দেয়া হয়।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমদের রিট আবেদনের শুনানি শেষে রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হাসান হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবি আব্দুল হালিম ক্বাফি।

রিটের পক্ষের আইনজীবীরা বলেন, জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) ফারুক আহমদকে মাত্র ২ ভোটে পরাজিত দেখানো হয়। পৌরসভার ৪টি ওয়ার্ডের ভোট গণনায় বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে মেয়র পদের ফলাফল স্থগিত করে পুনঃগণণার আদেশ চাওয়াহিয়। শুনানি শেষে হাইকোর্ট বেঞ্চ মেয়র পদের ফলাফল ও গেজেট স্থগিত করে ১ মাসের মধ্যে ৪টি ভোট সেন্টারের ভোট পুনরায় গণনার নির্দেশ দেন।

গত ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল আহাদ (স্বতন্ত্র) পান ২০৮৩ ভোট। তার নিকটতম প্রার্থী ফারুক আহমে (স্বতন্ত্র) পান ২০৮১ ভোট।

তাৎক্ষণিক ফলাফল প্রত্যাখান করে ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগ আনেন ফারুক আহমদ। এ নিয়ে তিনি সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে কয়েকটি ভোট কেন্দ্রের ভোট পুনঃগণনার দাবী জানিয়েছিলেন। কিন্তু লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করলেও আব্দুল আহাদকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিতও ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার শাদমান সাকীব।