সিলেটের জৈন্তাপুর সীমান্তে ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে এক যুবক নিহত হয়েছেন৷

উপজেলার ডিবির হাওর এলাকায় কেন্দ্রিবিল সীমান্তে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মকবুল আলী চোরাকারবারের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, মঙ্গলবার ভোরে কেন্দ্রিবিল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে মটরশুটি নিয়ে ভারতে প্রবেশ করে চোরাকারবারি দল। দুপুরে ফেরার পথে স্থানীয় খাসিয়া বাসিন্দারা গুলি করে।

এতে কেন্দ্রি ঝিঙ্গাবাড়ী গ্রামের মকবুল আলী নিহত হন৷ এ সময় তার সঙ্গে থাকা অন্যরা মকবুলের মরদেহ ভারতের ভেতর থেকে সীমান্তের জিরো লাইনে রেখে পালিয়ে যান।

জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, ‘খাসিয়াদের গুলিতে এক যুবক নিহত হয়েছেন। আমরা তার মরদেহ উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি।’

তবে বিজিবি সিলেট ৪৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক আহমদ ইউসুফ জামিল জানান, ‘বিজিবির সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা কাঠ সংগ্রহ করতে ভারত সীমান্তের ভেতরে গিয়েছিলেন। পরে ভারতের বাসিন্দারা তাদের ধাওয়া করে গুলি করে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান মকবুল।’

স্থানীয়দের অভিযোগ, জৈন্তাপুরের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে প্রয়াই মটরশুটি পাচার হয়। এ ছাড়া বিভিন্ন প্লাস্টিকের সামগ্রী পাচার করে চোরাকারবারিরা। এর বিপরীতে ভারত থেকে চোরাই পথে আনা হয় মাদক, কসমেটিকস ও নিষিদ্ধ শেখ নাছির উদ্দিন বিড়ি। সম্প্রতি ভারতের সীমান্ত বন্ধ হওয়ায় চোরাকারবার আরও বেড়েছে বলে দাবি তাদের।