সিলেটের জৈন্তাপুরের দরবস্ত এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় আহত দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোর ৪টার দিকে তারা মারা যান। এ নিয়ে দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে পাঁচ।

নিহত একজন মোটরসাইকেলের ও আরেকজন পিকআপ ভ্যানের আরোহী ছিলেন। প্রাথমিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দস্তগীর আহমেদ।

রোববার রাত দেড়টার দিকে জৈন্তাপুরের দরবস্ত এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জাফলং থেকে সিলেটগামী একটি ট্রাক সিলেট-তামাবিল সড়কের দরবস্ত এলাকায় একটি পিকআপ ভ্যান ও একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়।

ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত ও দুইজন গুরুতর আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

নিহত ওই তিনজনের একজন পিকআপচালক ও অপর দুজন মোটরসাইকেলের আরোহী ছিলেন।

নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের পরিচয় জানা যায়। তারা হলেন, সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ি এলাকার আশিক আহমদ। তিনি পিকআপ ভ্যানের চালক। অপরজন মোটরসাইকেল আরোহী গোলাপগঞ্জের সুহেল আহমদ। মোটরসাইকেলে থাকা আরও এক আরোহী তাৎক্ষণিকভাবে তার পরিচয় জানা যায়নি।

এর আগে রোববার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে জৈন্তাপুরের ফেরিঘাট এলাকায় সিলেট-তামাবিল সড়কে অটোরিকশাকে ট্রাক চাপা দিলে পাঁচজন নিহত হন।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন, জৈন্তাপুরের রূপচেঙ গ্রামের সাদিয়া বেগম, তার চার মাসের শিশুসন্তান শাহাদত হোসেন, মেয়ে সাবিয়া বেগম, সাদিয়া বেগমের ননদ হাবিবুন্নেছা ও উপজেলার পাখিবিল গ্রামের অটোরিকশাচালক হোসেন আহমদ।

এই দুর্ঘটনায় আহত হন নিহত সাদিয়া বেগমের ভাশুর মো. জাকারিয়া ও ভাশুরের স্ত্রী হাসিনা বেগম।