দিনরাত ডেস্ক : একদিন আগেই ‘তুলসি পূজা’র রঙিন উৎসব শুরু হয়েছে নাগপুরে। বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচকে ঘিরে ধর্মীয় এই উৎসবে যেন নতুন রঙ লেগেছে! এর মধ্যে রোববার ছুটির দিনে হওয়ায় উপচে উঠেছে গ্যালারি।

এমনই উৎসব মুখর পরিবেশেই সুপার সানডেতে বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে খেলতে নেমেছে বাংলাদেশ ও ভারত। সিরিজে ১-১ সমতা। এই ম্যাচে যারা জিতেবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ তাদেরই। সুতরাং বলাই যেতে পারে এটিই অলিখিত এক ফাইনাল ম্যাচ।

মহাগুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে টস ভাগ্য থাকল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পক্ষে। কঠিন চ্যালেঞ্জে উইকেটের কথা ভেবে শুরুতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচে দিল্লিতে ৭ উইকেটে জিতে সিরিজে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। কিন্তু পরের ম্যাচে রাজকোটে ৮ উইকেটের জয় দিয়ে সিরিজে ফিরেছে রোহিত শর্মার দল। এ পর্যন্ত ১০টি টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-ভারত। টাইগাররা জিতেছে মাত্র ১টি। বাকী ম্যাচগুলোতে ভারত।

আগের দুই টি-টোয়েন্টির দলে একটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। মোসাদ্দেক হোসেনের বদলে একাদশে ফিরলেন মোহাম্মদ মিঠুন। বাংলাদেশের মতো ভারতীয় একাদশেও একটি পরিবর্তন। অলরাউন্ডার ক্রুনাল পান্ডিয়ার জায়গায় দলে এসেছেন ব্যাটসম্যান মনিশ পান্ডে। খলিল আহমেদ টিকে গেলেন একাদশে।

বাংলাদেশ একাদশ:
সৌম্য সরকার, লিটন দাস, নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, আমিনুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান ও আল আমিন হোসেন।

ভারত একাদশ:
রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, রিশাভ পান্ত, শিবম দুবে, মনিশ পান্ডে, ওয়াশিংটন সুন্দর, যুজবেন্দ্র চাহাল, দিপক চাহার ও খলিল আহমেদ।