দিনরাত প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে আহত এক শিশু একেবারেই একা হয়ে পড়েছে। তার আশপাশে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। শিশুটি কথা বলতে না পারায় তার নামও জানা যায়নি।

সে দুর্ঘটনায় আক্রান্ত উদয়ন এক্সপ্রেসে ছিল। মেয়ে শিশুটির মা-বাবা বা কোনো অভিভাবকের সন্ধান পাওয়া যায়নি। বর্তমানে সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

মেয়েটির ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে তার স্বজনদের খুঁজে পেতে সাহায্য করার আবেদন জানিয়েছেন অনেকেই। তার স্বজনদের কোনো সন্ধান পেলে রেলওয়ে পুলিশের সঙ্গে কিংবা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তবে মেয়েটি কে, সে কি হবিগঞ্জের ? ফেসবুকে অনেকে দাবি করছেন মেয়ে শিশুটি হবিগঞ্জ ছাত্রদলের সহ সভাপতি আলী মো. ইউসুফের আত্মিয় কেউ। কারণ ওই মেয়েটিকে কুলে নিয়ে আলী ইউসুফের একটি ছবিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

এদিকে, ট্রেন দুর্ঘটনায় আলী ইউসুফ নিহত হওয়ার খবরও পাওয়া গেছে। তবে তার পরিবারের কোন সদস্যের সাথে এখনও যোগাযোগ করা যায়নি। তাই আলী ইউসুফের মৃত্যু ও মেয়েটির সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা স্টেশনে মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোররাতে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেন এবং চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষে অন্তত ১৬ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন শতাধিক যাত্রী।