মাত্র ৫ মাস খোলা থাকার পর ২য় বারের মতো আবারও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে অবস্থিত সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত জনপ্রিয় এ পর্যটন স্পটটি দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ থাকবে।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) রাতে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান বন্ধের বিষয়টি দিনরাতনিউজকে নিশ্চিত করেন চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সত্যজিৎ চন্দ্র দাশ।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ১ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য পর্যটন স্পট ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো বন্ধ রাখতে জেলা প্রশাসন একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের বন কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুয়ায়ী ১ এপ্রিল থেকে সাতছড়ি উদ্যানে দর্শনার্থী প্রবেশ বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নির্দেশনা পাওয়ার পরপরই উদ্যানের গেটে বন্ধের বিজ্ঞপ্তি ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। নির্দেশনা অমান্য করে যেন কোন পর্যটক উদ্যানের ভেতরে প্রবেশ করতে না পারেন সেজন্য নিরাপত্তাকর্মীরা দায়িত্ব পালন করবেন।

এর আগে গত বছরের ১৯ মার্চ করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সাতছড়ি উদ্যান পর্যটকদের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়। এর সাড়ে ৭ মাসেরও বেশি সময় পর ১ নভেম্বর উদ্যান পর্যটকদের জন্য খুলে দেয় কর্তৃপক্ষ।

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় ২০০৫ সালে ৬শ একর পাহাড়ি জমিতে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান গড়ে তোলা হয়। সিলেট বিভাগের এটি অন্যতম একটি ভ্রমণের স্থান হিসেবে পরিচিত। এই উদ্যানে প্রায় ২০০ প্রজাতির পাখি, ৪২ প্রজাতির সরীসৃপ ও স্তন্যপায়ী এবং ছয় প্রজাতির উভচর রয়েছে। এছাড়াও আছে লজ্জাবতী বানর, উল্লুক, চশমা হনুমান, কুলুবানর, মেছোবাঘ, মায়া হরিণসহ নানা প্রজাতির প্রাণী। এগুলো দেখতে ও সবুজ প্রকৃতির টানে প্রতিদিন শত শত দর্শনার্থী ভিড় করেন এই উদ্যানে।