দিনরাত প্রতিবেদক, হবিগঞ্জ : বুধবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের বৈঠক শেষে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা আসলেও তা মানছেন না হবিগঞ্জ-সিলেট বিরতিহীন বাস শ্রমিকরা। সকাল থেকে এ রোডে কোন দূরপাল্লার বাস চলেনি। উল্টো সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা।

এর আগে বুধবার রাত সোয়া একটার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের ধানমন্ডির বাসায় সংবাদ সম্মেলনে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মালিক ও শ্রমিকেরা ৯ দফা দাবি উত্থাপন করেছিলেন। এগুলোর মধ্যে যেসব দাবি যৌক্তিক মনে হবে, সেগুলো বিবেচনার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। যে লাইসেন্স দিয়ে তারা এখন গাড়ি চালাচ্ছেন, তা আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত বহাল থাকবে। এর মধ্যে তারা যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে কাগজপত্র হালনাগাদ করবেন।

তবে বিভিন্ন রুটে লোকাল বাস চলাচল করলেও দূরাপাল্লার কোন বাস চলতে দেখা যায়নি। এগুলোতে যাত্রীর চাপও ছিলো অতিরিক্ত। এই সুযোগে বিভিন্ন রুটে সিএনজি অটোরিকশা বাড়তি ভাড়া আদায় করেছে। পাশাপাশি বাস সংকট থাকায় মহাসড়ক দিয়ে দেধারছে চলছে সিএনজি অটোরিকশা।