হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার নবীগঞ্জ-ইনাতগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কে রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে নবীগঞ্জ (ইনাতগঞ্জ) ফাঁড়ি পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) ভোর রাতে স্থানীয় ইনাতগঞ্জ সড়ক পাশে রক্তাক্ত লাশটি পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় পথচারী। পড়ে স্থানীয় ফাঁড়ির পুলিশকে বিষয়টি জানালে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

নিহত ব্যক্তি নবীগঞ্জ উপজেলার বড় ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়নের ছোট ভাকৈর গ্রামের বড় বাড়ির মরহুম আবুল কালাম আজাদের ছেলে মো. আলমগীর মিয়া (৪০)। তার লাশ হিসেবে শনাক্ত করেন পরিবারের সদস্যরা।

পুলিশ লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তে জন্য হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছে। এই ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে, নবীগঞ্জ-বাহুবল উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরী ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন।

নিহত মো. আলমগীর মিয়ার ভাই রুনেল জানান তাকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রেখেছে। এটাকে সড়ক দুর্ঘটনা হিসেবে চালিয়ে দেওয়ার জন্য চেষ্টা চলছে।

রুনেল আরো বলেন- যেভাবে রাস্তায় তার ভাইয়ের লাশ ফেলে রাখা হয়েছে এবং তাতে বুঝা যাচ্ছে তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। যদি সড়ক দুর্ঘটনা হতো তাহলে শুধু মাথায় আঘাত নয়, সম্পূর্ণ শরীরে একাধিক স্পট থাকতো।

এ ব্যাপারে ইনাতগঞ্জ ফাড়ির ইনচার্জ মো. সামছুউদ্দিন জানান, সম্ভবত রাতে কোনো অজ্ঞাতনামা গাড়ি তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু ঘটে। তার শরীরের বিভিন্ন অংশে সড়ক দুর্ঘটনার চিহ্ন রয়েছে।

তিনি ধারনা করছেন এটি সড়ক দুর্ঘটনা। তবে নিহত পরিবার যদি মামলা দায়ের করলে তারা তদন্ত করে দেখবেন। এছাড়া ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে বুঝা যাবে এটি হত্যাকাণ্ড নাকি সড়ক দুর্ঘটনা।