নবীগঞ্জ উপজেলার বুরহানপুর মাঝের হাটির উদ্ধোগে ওয়ান ন্যাশন ইউকে কর্তৃক আয়োজিত দিনব্যাপী বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা শিবির শুরু হয়েছে। চক্ষু চিকিৎসা শিবিরে বিনামূল্যে দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষা শেষে চোখের ছানিপড়া ৭৫০ জন ও চোখের নেত্রনালী (ডিসিআর) ৭০ জন রোগীকে অস্ত্রোপচারের জন্য বাছাই করা হয়।

রবিবার সকাল ৯টায় হবিগঞ্জ ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থায় বিনামূল্যে ফ্রি চক্ষু শিবিরের উদ্বোধন করেন ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের ডা. মোঃ সাহেদুল হাসান, ডা. অপু রায়, মোঃ ইব্রাহীম সহ চিকিৎসক গন।

শাহীন মিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ৩নং ইউপি চেয়ারম্যান বজলুর রশিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেখ করিমুল্লাহ ইসলামিক ট্রাস্টের চেয়ারম্যান জহিনুর রহমান, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, নাজমুল ইসলাম, কাজী শিহাব, গেদা মিয়া, আশিক মিয়া, রিজন মিয়া, কয়েস আহমদ, ঝালু মিয়া চৌধুরী, ফখরুল মিয়া চৌধুরী, কানু মিয়া চৌধুরী, শাহ কামাল চৌধুরী, বদরুল মিয়া চৌধুরী, রাজু মিয়া চৌধুরী, সাদিক মিয়া, দবির আহমেদ, হাবীবুর রহমান হাবীব, জামিল হক, সাজু আহমদ, দিলদার, কাজী রাহী, রুহান মিয়া, জিলু মিয়া, রুবেল আহমদ, নাঈম, কয়েস মিয়া, কয়েস মিয়া (২), সান্তনী আমী এনী, ছাবু মিয়া প্রমুখ। এছাড়াও গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফয়েজ চৌধুরী। বলেনডিয়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মোঃ দিলদার হোসেন। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বুরহানপুর ওয়েল ফেয়ার ফাউন্ডেশন। বাস্তবায়নে ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতাল হবিগঞ্জ।

এ সময় বক্তারা বলেন, সমাজে অসহায় ও আর্তপীড়িত মানুষের কল্যাণে কাজ করার মধ্যে রয়েছে পরম তৃপ্তি। সৃষ্টিকর্তাকে ভালোবাসতে হলে তার সৃষ্ট জীবকে ভালোবাসতে হবে। আশরাফুল মাখলুকাত সৃষ্টির সেরা জীব হচ্ছে মানুষ। তাই মানুষের সেবার মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করা সম্ভব। এলাকার অসহায় ও দরিদ্র মানুষ অর্থাভাবে ঠিকমতো চিকিৎসা করতে না পারায় নানা রোগে ভুগে থাকেন। চোখ হচ্ছে মানুষের অমূল্য সম্পদ। তাই চোখের যত্ন নিতে হবে। সর্বোপরি সমাজের অবহেলিত মানুষের কল্যাণে বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে।

আয়োজকরা জানান, এ বছর রোগীর সংখ্যা গত বছরের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে।

ওয়ান ন্যাশন ইউকে ট্রাস্ট চক্ষু সেবার পাশাপাশি গৃহ নির্মাণ, রিকশা বিতরণ, পবিত্র রমজান মাসে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, অসহায় ও এতিমদের জন্য নগদ অনুদান প্রদানহ আর্থ-মানবতার সেবায় বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে।