দিনরাত প্রতিবেদক : রাজধানীর মিরপুর-১৪ নম্বরে আত্মহত্যা করা হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার পুলিশ সদস্য শাহ মো. কুদ্দুস (৩১) ডিউটিতে যাওয়ার সময় পুলিশের পিকআপভ্যানে বসে বুকে গুলি চালিয়েছেন বলে সুরতহাল প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে নিহত কুদ্দুসের সুরতহাল প্রতিবেদনকারী কাফরুল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোজাম্মেল হোসেন মিয়া এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, কুদ্দুস ইউনিফর্ম পরে ভোরে ডিউটিতে যাওয়ার সময় মিরপুর-১৪ পুলিশ লাইনে পিকআপভ্যানে উঠে নিজের ইস্যু করা এসএমজি দিয়ে বুকে গুলি চালান। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। নিহতের বুকে দু’টি ছিদ্র দেখা গেছে। তার জন্য বরাদ্দ করা এসএমজি মৃতদেহের পাশেই পড়েছিল।

ফেসবুকে স্ট্যাটাসনিহত কুদ্দুসের সহকর্মীদের বরাত দিয়ে মোজাম্মেল হোসেন মিয়া জানান, কয়েকদিন ধরে মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন কুদ্দুস। ধারণা করা হচ্ছে, সেকারণেই নিজের বরাদ্দ করা অস্ত্র দিয়ে বুকে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করতে পারেন তিনি। তবে ডিউটিতে যাওয়ার জন্য পিকআপভ্যানে উঠেছিলেন তিনি। ওই পিকআপভ্যানের ভেতরেই এ ঘটনা ঘটেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। কুদ্দুসের বাবার নাম শাহ আব্দুল ওয়াহাব। তিনিও পুলিশ সদস্য ছিলেন। ২০১২ সালে তিনি মারা যান।