পুলিশকে হেয় করে সংলাপ দেয়ার অভিযোগে ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমার পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহিন মৃধাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আদালত তাদের কারাগারে পাঠিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়।

শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, অর্চিতা স্পর্শিয়া অভিনীত নবাব এলএলবি চলচ্চিত্রটি গত ১৬ ডিসেম্বর মুক্তি পায় ‘আই থিয়েটার’ নামে একটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। সেলিব্রেটি প্রোডাকশন প্রযোজিত সিনেমাটির চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন পরিচালক অনন্য মামুন।

শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে আসামিদের মুখ্য মহানগর হাকিম মইনুল ইসলামের আদালতে নেয়া হয়। শুনানি শেষে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) পরিদর্শক কাজী মো. নাসিরুল আমিন রমনা থানায় পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা করেন। এই মামলায় তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলায় অভিনেত্রী স্পর্শিয়াকেও আসামি করা হয়েছে।

মামলায় বলা হয়, ‘এ চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে একজন ধর্ষিতা নারী থানায় গিয়ে ধর্ষণের বিষয়ে অভিযোগ করলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রশ্নোত্তর সংক্রান্ত ভিডিও দেখানো হয়েছে, যেখানে ধর্ষণের বর্ণনা ও জিজ্ঞাসাবাদ অত্যন্ত আপত্তিতকর ভাষায় করা হয়েছে, যা সুস্থ বিনোদনের পরিপন্থি হওয়ায় পরিবার-পরিজনসহ একত্রে বসে দেখা সম্ভব নয় এবং যা জনসাধারণের মধ্যে পুলিশ সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা তৈরি করবে। এ ভিডিও বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর জন্য অত্যন্ত মানহানিকর।’

এ অভিযোগে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১২-এর ৮-এর (১)(২)(৩)(৪)(৫)(৭) ধারায় মামলা করে পুলিশ।