ঝালকাঠির নলছিটিতে ক্ষেতের ধান খাওয়ায় বাসায় আগুন দিয়ে অর্ধশতাধিক বাবুই পাখিকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে।

উপজেলার ভৈরবপাশা গ্রামের জালাল সিকদার ওই এলাকার সিদ্দিক মার্কেটের সামনের তাল গাছে থাকা বাবুই পাখির বাসায় বাঁশের মাধ্যমে আগুন দেন।

আগুনে বাবুইয়ের ১১টি বাসা পুড়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে পাখিটির ৩৩টি মৃত ছানা পাওয়া গেছে। তবে পুড়ে যাওয়া আরও কিছু পাখির হদিস পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় জুলহাস মল্লিক বলেন, ‘বাবুই পাখির অপরাধ, তারা নাকি ক্ষেতের ধান খেয়ে ফেলে। এমন ঘৃণ্য কাজ একজন মানুষ করতে পারে তা ভাবতেই অবাক লাগে।’

এলাকার পাখীপ্রেমী অভিজিৎ বলেন, ‘বন বিভাগ ঝালকাঠিকে ইতিমধ্যেই মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। শনিবার লিখিতভাবে অভিযোগ আকারে জানানো হবে।’

ঝালকাঠি সদর উপজেলা বন কর্মকর্তা কার্তিক চন্দ্র মন্ডল বলেন, ‘মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়েছি। এটা যদিও খুলনা বন ও বণ্যপ্রানী বিভাগের আওতায়।

‘আমাদের ঝালকাঠি অফিস হলো সামাজিক বন বিভাগের। তবুও আজ আমি ঘটনাস্থলে যাব।’

পাখির নীড়ে আগুন দেয়া নিয়ে জানতে চাইলে জালাল সিকদার বলেন, ‘আমার ক্ষেতে ধান প্রতিদিন পাখিতে খেয়ে ফেলায় আমি আর্থিক লোকসানের দিকে যাচ্ছিলাম।’