দিনরাত ডেস্ক : ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুরে যাত্রীবাহী একটি বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন ৬ জন। নিহতরা সবাই মাইক্রোবাসটির যাত্রী, এদের মধ্যে বাবা-মেয়েসহ একই পরিবারের চার সদস্য রয়েছেন।

নিহতরা হলেন— ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ওলামাদলের সভাপতি ডা. শরিফুল ইসলাম (৪০), তার মেয়ে তাবাস্সুম (৮), ভাগ্নি তানজিলা (১৭), শ্যালিকা তাকিয়া আক্তার (১৪), বন্ধু এসআই ফারুক হোসেন ও মাইক্রোবাসের চালক নাহিদ।

দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ডা. শরিফুল ইসলামের স্ত্রী রিমি আক্তার (২৮)। তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (০৬ জানুয়ারি) সকাল ৭টার দিকে ফরিদপুর সদর উপজেলার কানাইপুর সংলগ্ন মল্লিকপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সিলেটের সুনামগঞ্জ থেকে বেনাপোলের উদ্দেশে ছেড়ে আসা মামুন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মল্লিকপুর নামের স্থানে পৌঁছালে বোয়ালমারী থেকে ঢাকাগামী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ৬ জন নিহত হন।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সাইফুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ৬ জন মারা গেছে। গুরুতর আহত এক নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া সড়ক দুর্ঘটনায় কবলিত গাড়ি সড়ক থেকে সরিয়ে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে। দুর্ঘটনাটিতে বাসের কোন যাত্রীর হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।