হবিগঞ্জের বাহুবলে চাঞ্চল্যকর কৃষক হত্যা মামলায় ১৫ বছর পর দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এসএম নাসিম রেজার আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো, বাহুবল উপজেলার মুদাহরপুর গ্রামের মৃত ইকরাম উল্লার ছেলে আব্দুর রশিদ (৫৫) ও মৃত তৈয়ব উল্লার ছেলে আব্দুল আওয়াল (৫০)। রায়ের সময় তারা আদালতে উপস্থিত ছিল।

এ মামলায় অভিযোগ প্রমাণীত না হওয়ায় বাকি ২৪ আসামিকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি সালেহ উদ্দিন আহমেদ এবং আসামি পক্ষে এডভোকেট মুদ্দত আলী।

আদালতের পেশকার সৈয়দ আব্দুল হাদি জুয়েল জানান, ২০০৬ সালে ২৩ জুলাই সকাল ১০টার দিকে ওই গ্রামের আব্দুর রশিদ ও তার লোকজনের সাথে একই গ্রামের সাদত আলী এবং তার লোকজনের জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ফিকলের আঘাতে সাদত আলী নিহত হন। এ ঘটনায় তার ছেলে আব্দুল মালিক বাদি হয়ে ২৬ জনকে আসামি করে বাহুবল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরবর্তীতে একই বছরের ৬ ডিসেম্বর এসআই শ্যামল চন্দ্র দাশ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

মামলায় চিকিৎসক, ওসিসহ ৩৪ জনকে স্বাক্ষি মানা হয়। পরে আসামিরা আদালতে হাজির হয়ে নিম্ন আদালতসহ উচ্চ আদালত থেকে জামিন লাভ করে। দীর্ঘ ১৫ বছর পর ৩৪ জন স্বাক্ষির মাঝে ২১ জন স্বাক্ষির স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় প্রদান করেন আদালত।