বাহুবলে আফিয়া খাতুন (২০) নামে এক গৃহবধুর মুখে বিষ ঢেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকাল ১০ টায় উপজেলা অমৃতা খাগাউড়া গ্রামে।

পিত্রালয়ের লোকজন দাবী করছেন আফিয়ার মুখে বিষ ঢেলে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে তারা।

আফিয়ার পিত্রালয়ের লোকজন জানান, প্রায় ৫ মাস পূর্বে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বড় বহুলা গ্রামের মৃত মকসুদ আলীর কন্যা আফিয়ার বিয়ে হয় বাহুবল উপজেলার অমৃতা খাগাউড়া গ্রামের আব্দুর রহিমের পুত্র নজরুল হকের সাথে। সোমবার সকাল ১১ টায় ননদ তফুরা খাতুন ফোন করে জানায় আফিয়াকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে আফিয়ার মাসহ পিত্রালয়ের লোকজন হাসপাতালে এসে তার মৃত দেহ দেখতে পান।

আফিয়া খাতুনের মা অভিযোগ করে বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করছিল আফিয়ার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। কিন্তু আমার মেয়ে যৌতুকের বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করলে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন তারা। এ নিয়ে আফিয়ার উপর চালানো হয় শারিরীক নির্যাতন। উল্লেখিত সময়ে আমার মেয়ের মুখে জোরপূর্বক বিষ ঢেলে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়ে যায় তারা। আমরা এ হত্যাকান্ডের ন্যায় বিচার চাই।’

হবিগঞ্জ জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তানভীর রব জানান, আফিয়াকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিষাক্রান্ত হয়ে সে মৃত্যুবরণ করেছে। লাশ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।