মাস্ক পরিধান না করার জের ধরে শহরের বৃন্দাবন সরকারী কলেজ গেইটে প্রিন্সিপাল ও এক বিচারকের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ প্রশাসনের মধ্যস্থতায় বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়।

জানা যায়, শুক্রবার বৃন্দাবন সরকারী কলেজ ক্যাম্পাস মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যান হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুল হুদা চৌধুরী। এ সময় মাস্ক না পড়ার কারণে কলেজ গেইটে তাকে বাধা দেন ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল প্রফেসর দেওয়ান জামাল উদ্দিন চৌধুরী। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রবিউল ইসলাম এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে চীফ জুডিশিয়াল ভবনের একটি কক্ষে বিষয়টি সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়।

শুক্রবার রাতে মোবাইল ফোনে এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রবিউল ইসলাম জানান, ঘটনা কিছুই না। তবে পরক্ষণেই তিনি বলেন, ‘বিষয়টি মিট হয়েছে।’ একই সময়ে বৃন্দাবন সরকারী কলেজের ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল প্রফেসর দেওয়ান জামাল উদ্দিন চৌধুরীর মোবাইল ফোনে বার বার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।