ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনায় এ পর্যন্ত ৪৮টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় ২৮৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৩৫ হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে। এর মধ্যে গত ১৪ দিনে গ্রেফতার করা হয়েছে মাত্র ৫৫ জনকে।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেল তিনটার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, হেফাজতে ইসলামের সহিংসতায় মোট মামলা ৪৮টি। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় ৪৩টি, আশুগঞ্জ থানায় তিনটি ও সরাইল থানায় দুইটি মামলা করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) রইছ উদ্দিন বলেন, ‘স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজ দেখে আসামিদের সনাক্ত করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত অনেকেই এখনও পলাতক রয়েছে। তাদের ধরতে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ভিডিও ফুটেজগুলো দেখে অজ্ঞাতনামা আসামিদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে এবং ঢাকা ও চট্টগ্রামে মাদরাসা ছাত্রদের ওপর পুলিশের হামলার খবরে গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলামের সমর্থকেরা। এ সময় পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সিভিল সার্জনের কার্যালয়, মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়, পৌরসভা কার্যালয়, জেলা পরিষদ কার্যালয়, ডাকবাংলো, খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা ভবন, আলাউদ্দিন সংগীতাঙ্গন, আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তন ও শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরসহ ৩৮টি সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে তারা। এ ঘটনায় নিহত হয় ১২ জন।