দিনরাত ডেস্ক : বিরোধী রাজনীতিকদের হেনস্তার শিকার বলে নিজের স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই প্রেক্ষিতে শীঘ্রই নিজের জন্মস্থান নিউইয়র্কে অবস্থিত ‘ট্রাম্প টাওয়ার’-এর বর্তমান স্থায়ী ঠিকানা ছেড়ে ফ্লোরিডায় স্থায়ী হওয়ার জন্য চলে যাচ্ছেন তিনি।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্লোরিডায় স্থায়ী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার এক টুইট বার্তায় এ ঘোষণা দেন তিনি।

ট্রাম্প জানান, নিউইয়র্কের রাজনৈতিক নেতাদের দ্বারা আমি হেনস্তার শিকার হচ্ছি। মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ট্যাক্স প্রদানের পরও তারা এমন করছে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প নিউইয়র্কে জন্মেছেন। তবে তিনি জীবনের বেশি সময় কাটিয়েছেন ফ্লোরিডার পাম বিচ শহরে। এ কারণেই হয়তো নিউইয়র্ক ছেড়ে ফ্লোরিডাকেই তিনি স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে বেছে নিচ্ছেন।

এক টুইটার পোস্টে মার্কিন প্রেসিডেন্ট লিখেন- শহর, অঙ্গরাজ্য এবং স্থানীয় ক্ষেত্রে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ট্যাক্স প্রদানের পরও শহর এবং অঙ্গরাজ্যের রাজনৈতিক নেতারা আমার সঙ্গে বাজে ব্যবহার করছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা আমার সঙ্গে চূড়ান্ত বাজে ব্যবহার করেছে।