মাধবপুরে কৌশলে ঝুপের মধ্যে নিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে এক যুবক। আহত অবস্থায় ওই নারীকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গত সোমবার দুপুরে মাধবপুর উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের একটি ঝোপের মধ্যে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

ওই নারী জানান, সোমবার সকালে ওই নারী মাঠে ৩টি গরু রেখে আসেন। দুপুরে গরুগুলো আনতে গিয়ে দেখেন একটি গরু মাঠে নেই। অনেক্ষণ খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে তিনি দেখেন মাঠের পাশে একটি ঝোপের মধ্যে গরুটি বাঁধা রয়েছে। এ সময় তিনি গরুটি আনতে ঝোপের মধ্যে যাওয়া মাত্রই একই গ্রামের রফিক মিয়া ওই নারীকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় এক কিশোর ঘটনাটি দেখে ফেলায় রফিক মিয়া পালিয়ে যায়।

ঘটনায় দস্তাদস্তিতে ওই গৃহবধূ বেশ আহত হয়েছেন। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই নারীর পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেন, ঘটনাটি শালিসের মাধ্যমে নিষ্পত্তির জন্য চাপ প্রয়োগ করছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল।

এ ব্যাপারে চৌমুহনী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আপন মিয়া বলেন, ঘটনা আমি শুনেছি। এ বিষয়ে ভোক্তভোগী থানায় অভিযোগ করবেন বলে শুনছি।

চৌমুহনী ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা বিট অফিসার এসআই বাবুল বলেন, এ ঘটনা কেউ এখনো অবগত করেনি। অভিযোগ ফেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মাধবপুর থানার ডিউটি অফিসার এএসআই নজরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত ভিকটিভ কোন অভিযোগ দেননি। শুনেছি নির্যাতিতা মাধবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মনিকা রানী পাল বলেন, ভিকটিমের নাকে মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে মাধবপুর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।