মাধবপুর উপজেলার দরগা গেইট এলাকার তাজপুরে যৌতুকের জন্য সীমা আক্তার (২৪) নামে এক নববধূকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীসহ তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় নিহত সীমার দুই ননদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় সীমার স্বামী পলাতক রয়েছে।

শুক্রবার রাত ১০টার দিকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহত সীমা আক্তার হবিগঞ্জ শহরতলীর পশ্চিম ভাদৈ এলাকার সাইফুল আলমের স্ত্রী। তারা মাধবপুর উপজেলার তাজপুরে থেকে কোম্পানীতে চাকরি করত।

জানা যায়, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল ইউনিয়নের আউশপাড়া গ্রামের আব্দুস শহীদের মেয়ে সীমা আক্তারকে দুই মাস আগে সাইফুলের কাছে বিয়ে দেয়া হয়। বিয়ের দুই মাসের মাথায় এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি পরিবারের। নিহতের বাবার বাড়ির লোকজনের দাবি সীমা আক্তারের স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে।