মৌলভীবাজার সদর উপজেলার নাজিরাবাদ ইউনিয়নে ১৩ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর আহত এই কিশোরি সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

এদিকে, ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত বাবুল মিয়াকে হবিগঞ্জ থেকে আটক করেছে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) পরিমল দেব জানান, সোমবার বিকেলে কিশোরী বাড়িতে একা ছিল এই খবর জানতে পারে তাদের পূর্বপরিচিত পার্শ্ববর্তী বাজারের ব্যবসায়ী বাবুল মিয়া (২৮)। বাবুল মিয়া মেয়েটিকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে।

রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তারে সিলেট প্রেরণ করা হয়। মেয়েটি গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসা নিচ্ছে।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, অভিযুক্ত বাবুল মিয়াকে হবিগঞ্জ থেকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধিন আছে।