দিনরাত প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার : আইনে নিষিদ্ধ থাকলেও প্রসাশনের চোখ ফাঁকি দিয়ে টিলা কেটে সাবাড় করছেন মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলাল মিয়া। টিলায় লাগানো গাছ উজাড় করে একের পর এক মাটি বিক্রি করে যাচ্ছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, রাজনগর উপজেলার মুন্সিবাজার ইউনিয়নের ইটা চা বাগান সংলগ্ন নয়া টিলা এলাকায় অনুমতি ছাড়াই প্রকাশ্যে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। বড় প্রতি ট্রাক ৮০০-১০০০ টাকা ও মিনি ট্রাক ৪০০-৬০০ টাকা হারে মাটি বিক্রি করছেন তিনি।

অপরিকল্পিতভাবে টিলা কাটায় প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বহন করে চলা পাহাড়ি টিলাগুলো একে একে নিশ্চিহ্ন হওয়ার আশঙ্গা রয়েছে। অপরিকল্পিত ও পরিবেশ বিধ্বংসী এসব নানা কার্যক্রমের ফলে প্রাকৃতিক পরিবেশ বিপর্যয়ের পাশাপাশি বর্ষা মৌসুমে টিলাভূমিতে ধস নেমে হুমকির মুখে পড়ছে আশপাশের বাড়িঘর।

উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মো. আলাল মিয়া বলেন, আমি বাড়িতে থাকি, কে বা কারা আমাকে না জানিয়ে আমার টিলা থেকে মাটি কেটে নিচ্ছে। আপনি তাদের বিরুদ্ধে কোন আইনি পদক্ষেপ নিচ্ছেন না কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন হাতেনাতে ধরতে পারি না, তাই এদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছি না।

এ ব্যাপারে রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌসী আক্তার জানান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) না থাকায় টিলা কাটার বিষয়টি শুনে তাৎক্ষণিক ভূমি অফিসের তহশিলদারকে ঘটনাস্থলে পাঠাই। কিন্তু সে সময় কোনো মাটি বহনকারী গাড়ি না থাকায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে নির্দেশনা দেওয়া আছে, টিলা কাটায় যুক্ত কোনো গাড়ি পাওয়া মাত্র আটক করার জন্য