যশোর পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার শেষে কথা কাটাকাটির জেরে পারভেজ হোসেন নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়া হয়েছে

শহরের ঘোপ বেলতলা বউবাজারে মঙ্গলবার রাত এগারোটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত পারভেজ হোসেনের বাড়ি সদরের বাহাদুরপুর গ্রামের হঠাৎপাড়ায়।

পারভেজের মরদেহ দেখে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কাউন্সিলর প্রার্থী শফিকুল ইসলাম সোহাগ।

নিহতের খালা রওশন আরা জানান, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শফিকুল ইসলাম সোহাগের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় তার নির্বাচনি প্রচারে অংশ নেন পারভেজ। প্রচার শেষে সন্ধ্যায় বউবাজার এলাকায় একটি চায়ের দোকানে গিয়ে বসেন। সেখানে কোনো একটি বিষয় নিয়ে চার জনের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তারা তাকে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়।

আরিফ হোসেন নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, হামলাকারীদের মধ্যে দুই জনের নাম নূর আলম ও নান্টু।

হামলার পর পারভেজকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক এম আব্দুর রশিদ জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে পারভেজের মৃত্যু হয়েছে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) সেখ সালাউদ্দিন শিকদার বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়া হয়েছে।’

নির্বাচনের জেরে হত্যা কি না জানতে চাইলে তিনি জানান, বিষয়টি তদন্ত না করে বলা যাবে না।

এদিকে পারভেজের মরদেহ দেখে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কাউন্সিলর প্রার্থী সোহাগ।