আখাউড়া-সিলেট রেল লাইনের হবিগঞ্জের মাধবপুরের শাহজীবাজারে ট্রেন দূর্ঘটনাটি মূলত স্টেশন মাস্টারের ভুলের কারণেই ঘটেছে বলে দাবি করেছেন ট্রেনের চালকরা।

হবিগঞ্জের শাহজিবাজারে সিলেটগামী তেলবাহী ট্রেনের চারটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। ফলে সিলেটের সঙ্গে আবারও সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

তারা বলছেন, শাহজীবাজার স্টেশনের কাছে লাইনের রক্ষণাবেক্ষণ কাজ চলছিল। অথচ তাদেরকে পূর্বে কোন নোটিশ দেয়া হয়নি। এমনকি ট্রেন আসার সময় স্টেশন মাস্টার স্টেশনে না থাকায় কোন ধরণের সিগনাল দেয়া হয়নি। যে কারণে দূর্ঘটনাটি ঘটেছে।

দুর্ঘটনা কবলিত ট্রেনের সহকারি চালক হামিদুর আহমেদ বলেন, লাইনের রক্ষণাবেক্ষণ কাজ চলছিল। কিন্তু আমাদেরকে কোন নোটিশ বা সিগনাল দেয়া হয়নি। ফলে ট্রেনটি ১নং লাইন দিয়ে যাওয়ার কথা থাকলে ইঞ্জিন অটোমেটিক ২নং লাইনে চলে যায়। এছাড়া বগি চলে যায় ১নং লাইনে। যে কারণে এই দূর্ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে, ঘটনার পর থেকে শাহজীবাজার স্টেশন মাস্টার মোফাজ্জল হোসেনকে পাওয়া যাচ্ছে না।

শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশনের উপ সহকারি প্রকৌশলী সাইফুর আলম বলেন, ঘটনাস্থলে উদ্ধারকারী ট্রেন আসছে। তবে কবে নাগাদ রেল চলাচল স্বাভাবিক হবে তা জানা যায়নি।
এর আগে রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় ট্রেনের ৪টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে যায়।

এদিকে, তেলবাহী ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়ায় বিপুল পরিমাণ জ্বালানি তেল দুর্ঘটনাস্থলে ছড়িয়ে পড়েছে। তেল সংগ্রহে সেখানে ভিড় জমিয়েছেন স্থানীয়রা। শুধু দূর্ঘটনা কবলিত এলাকা নয়, আশপাশের এলাকা থেকেও নারী-পুরুষ ও শিশু-বৃদ্ধরা বালতি, কলসি ও ড্রামসহ বিভিন্ন জিনিসে করে তেল নিয়ে গেছেন।