করোনা মহামারী প্রতিরোধে সরকার বিভিন্ন নির্দেশনাসহ ৭ দিনের জন্য সারাদেশে লকডাউন ঘোষনা করেছে। সেই অনুযায়ী পাবলিক পরিবহন এবং বিপনী বিতান বন্ধের মনিটরিং এ জেলা প্রশাসন হবিগঞ্জ শহরে ৪টি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছে। এসময় বিভিন্ন অপরাধে ১৪টি মামলা এবং ৯ হাজার ৬শ’ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এদিকে, দিনের শুরুতে করোনা মহামারী প্রতিরোধের লক্ষে সরকারের নির্দেশনা অমান্যা করে দোকানপাট খোলাসহ শহরে ব্যাপক মানুষের চলাফেরা এবং যান চলাচল করে। কিন্তু বেলা বাড়ার সাথে সাথে প্রসাশনের তৎপরতা বৃদ্ধির কারণে যান চলাচল সীমিত এবং দোকানপাট বন্ধ হয়ে আসে।

৪টি মোবাইল কোর্টের পাশাপাশি জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় তিনি কয়েকটি দোকানে মামলা ও জরিমানা আদায় করেন।

অন্যদিকে, ব্যবসায়ীরা দাবি করেন এমনিতেই করোনা মহামারীর কারণে আমাদের ব্যবসার অবস্থা শোচনীয় হয়ে পড়েছে, আবার সামনে ১লা বৈশাখ এবং রমজানের ঈদ। এমতাবস্থায় যদি আমাদেরকে সীমিত আকারে ব্যবসা করার সুযোগ না দেওয়া হয় তাহলে আমাদের পথে বসতে হবে।

অভিযান চলাকালে জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান বলেন, সরকার জনগনের নিরাপত্তার জন্য সচেষ্ট, করোনা মহামারী প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশনা প্রশাসন কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করবে। কাউকে কোন রকম ছাড় দেয়া হবে না। জরুরী প্রয়োজনে যারা ঘর থেকে বের হবেন, তারা অবশ্যই মাস্ক পরিধান করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

অভিযানকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মর্জিনা আক্তার, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) কমান্ডার লুৎফর রহমানসহ প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাবৃন্দ।