মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া সংরক্ষিত বনে আগুন লেগেছে। এক ঘণ্টা ধরে আগুন জ্বললেও তা নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লাউয়াছড়ার স্টুডেন্ট ডরমেটরি অংশে কাজ করছিলেন কিছু শ্রমিক। কিন্তু দুপুর ১২টার দিকে সেখানে হঠাৎ আগুন জ্বলে উঠে।

পরে কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রের চেষ্টা করছে। তবে বনের ভেতরে রাস্তা না থাকায় ফায়ার সার্ভিস ভেতরে ঢুকতে পারছে না সেই সাথে পানির স্বল্পতা রয়েছে।

ঘটনাস্থলে থাকা পরিবেশকর্মী আব্দুল আহাদ জানান, ইতোমধ্যে প্রায় দুই একর পুড়ে গেছে।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী জানান, বন বিভাগের লোকজন এবং ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে আছে। দ্রুত আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

কী কারণে আগুন লাগল তা তদন্ত করছে বনবিভাগ।

সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী জানান, বনবিভাগের লোকজন এবং ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। আগুনে বড় ধরণের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হবে না বলে ধারণা করছি।

আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, কি কারণে আগুন লাগল তা তদন্ত করবে বনবিভাগ।

১২৫০ হেক্টর জমি নিয়ে লাউয়াছড়া সংরক্ষিত বনাঞ্চল। ১৯৯৬ সালে এটিকে জাতীয় উদ্যান হিসেবে ঘোষণা করা হয়। উদ্ভিদ আর প্রাণীবৈচিত্রের আঁধার এই বন বিভিন্ন বিরল ও বিপন্ন প্রজাতির প্রাণীর আবাসস্থল হিসেবে পরিচিত। বন বিভাগের হিসেব মতে, ২০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৫৯ প্রজাতির সরীসৃপ (৩৯ প্রজাতির সাপ, ১৮ প্রজাতির লিজার্ড, ২ প্রজাতির কচ্ছপ), ২২ প্রজাতির উভচর, ২৪৬ প্রজাতির পাখি ও অসংখ্য কীট-পতঙ্গ রয়েছে। এই বনে বিরল প্রজাতির উল্লুক, মুখপোড়া হনুমান, চশমাপড়া হনুমানও দেখতে পাওয়া যায়।