ভারতে দুইটি কারখানা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফোর্ড মোটর কোম্পানি। গুজরাট ও চেন্নাইয়ের কারখানা বন্ধ করে দিতে চলেছে তারা। উৎপাদন বন্ধ হলেও ভারতে গাড়ি রফতানি করা হবে বলে জানিয়েছে মার্কিন এই সংস্থাটি।

২৫ বছর আগে ভারতে আসলেও তেমন জনপ্রিয় হতে পারেনি ফোর্ড। দেশটির গাড়ির বাজারে তাদের অংশীদারিত্ব মাত্র ২ শতাংশ। টানা লোকসান গুনতে হচ্ছিল গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাটিকে। সে কারণেই এই নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়ে কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) মার্কিন সংস্থাটি এই বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, গত ১০ বছরে ভারতে ব্যবসা করতে গিয়ে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি লোকসান হয়েছে। আর নতুন গাড়ির চাহিদাও তেমন নেই। চেষ্টা থাকার পরও দীর্ঘকালীন লাভের পথ আমরা খুঁজে পাইনি।

এর আগে মার্কিন গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা জেনারেল মোটরস ও হারলে ডেভিডসন ভারত থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছিল। দেশটিতে মূলত কম দামি গাড়ির ব্যবসা করে সুজুকি মোটর কর্প ও হুন্ডাই মোটর।

পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২১ সালের শেষের মধ্যে গুজরাটের সানন্দের কারখানা বন্ধ করে দেবে ফোর্ড। সেখানে গাড়ির যন্ত্রাংশ লাগানোর কাজ হয়। ২০২২ সালের মাঝামাঝির মধ্যে চেন্নাইয়ে গাড়ির ইঞ্জিন তৈরির কারখানার বন্ধ করবে তারা।

এদিকে কারখানা বন্ধ করলেও ক্রেতাদের সুবিধা-অসুবিধার খেয়াল রাখা হবে জানিয়ে দিয়েছেন ফোর্ড ইন্ডিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর অনুরাগ মেহরোত্রা। তিনি বলেন, ভারতে আমাদের বিশ্বস্ত ক্রেতা, ডিলার ও সহযোগীদের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় থাকবে।