দিনরাত প্রতিবেদক, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জের পশ্চিম বড়চরে ট্রেনের ধাক্কায় আহত অটোরিকশার আরেক যাত্রী সামিরের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে ঘটনাস্থলেই সোহাগ নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দুইজনে দাঁড়াল।

রোববার রাত ১০ টায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুটি মারা যায়।

নিহতরা হলেন- শায়েস্তাগঞ্জের নছরতপুর গ্রামের সেলিম মিয়ার ছেলে সোহাগ মিয়া ও একই গ্রামের কামাল মিয়ার ছেলে সামি মিয়া। তারা শায়েস্তাগঞ্জ ইসলামিয়া একাডেমির দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম খান জানান, রোববার সকালে উপজেলার নছরতপুর থেকে তিন স্কুলছাত্র নিয়ে একটি অটোরিকশা একাডেমিতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মহাসড়কের পশ্চিম বড়চরে হাইওয়ে পুলিশের টহল দেখে অটো চালক। আটকের ভয়ে অটেটি ঘুরিয়ে রেলক্রসিং পার হওয়ার চেষ্টা করে সে। এ সময় সিলেটগামী লোকাল ট্রেন সুরমা মেইল রেলক্রসিংয়ে অটোকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সোহাগ নিহত হয়। এছাড়া আহত হয় অটোতে থাকা আরো দুই ছাত্র। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১০টায় সামি মারা যায়।