দিনরাত প্রতিবেদক, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে রাত ১২টার পর থেকেই শহীদ বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেয়া নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। প্রশাসনের কর্মসুচির বাহিরে গিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছেন বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনগুলো। বিষয়টি নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার দেখা দেয় সচেতন ও মুক্তিযোদ্ধা মহলে।

জানা যায়, ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস। শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণ, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের বিভিন্ন কর্মসুচির ঘোষণা দিয়েছে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন। এছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনগুলোও ভিন্ন ভিন্ন কর্মসুচি পালন করবে। হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসনের কর্মসুচিতেও সূর্যদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির শুভ সূচনা করা কথা বলা হয়েছে। অথচ শায়েস্তাগঞ্জের বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ রাত ১২টা বাজার পর থেকে শহীদ বেদীতে ফুলের শুভেচ্ছা জানাতে শুরু করেন।

শহীদ বেদীতে ফুল দেয়ার পর শুধু সামাজিক বিভিন্ন সংগঠনই নয়, আওয়ামী লীগ ও সাংবাদিকদের সংগঠনও রাত ১২টা বাজার পর পরই জানিয়েছে শ্রদ্ধাঞ্জলি। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সচেতন নাগরিকবৃন্দ।

সচেতন মহলের দাবি- ২১শে ফেব্রুয়ারিতে প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ফুল দেয়া হয়। আর বিজয় দিবসে সূর্যদয়ের সাথে সাথে শহীদ ব্যদীতে ফুল দেয়ার কথা। অথচ শায়েস্তাগঞ্জে বিজয় দিবসে ২১শে ফেব্র“য়ারি প্রচলন ঘটানো হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে- বিষয়টি নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ শহীদ বেদীর সামনে উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে সেখানে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ পৌঁছে নিরাপত্তা জোরদার করে।

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিছুজ্জামান বলেন- ‘শহীদ বেদীর কাছে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকালে শ্রদ্ধা জানানো হবে। তবে বিভিন্ন সংগঠন যদি রাতেই শ্রদ্ধা জানায় তাহলে আমাদের কি করার আছে।’