শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য সম্পর্কে জানাতে পাঠ্যক্রমে রামায়ণ ও মহাভারত যুক্ত করা হচ্ছে।

দেশটির প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমান ভিশন ২০৩০ ঘোষণার পর শিক্ষাক্ষেত্রে সংস্কারের অংশ হিসেবে এমন সিধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন দেশের ভিন্ন ভিন্ন ধর্ম, সংস্কৃতি, ঐহিত্য সম্পর্কে জ্ঞান দিতেই এমন কার্যক্রম হাতে নেন মোহাম্মাদন বিন সালমান।

সৌদি আরবে শিক্ষার সংস্কারে প্রিন্স সালমানের এই উদ্যোগ এরই মধ্যে প্রসংশিত হয়েছে বিভিন্ন দেশে। কেননা দেশটির পাঠ্যক্রমে ধর্মীয় ‘বিদ্বেষমূলক’ ও ‘উগ্র’ বক্তব্যগুলো সরিয়ে ফেলার এমন কাজ এর আগে কেউ করার সাহস দেখাননি।

আগে স্কুলগুলোতে পড়ানো হতো ‘বিধর্মীকে হত্যা করা জায়েজ’, ‘তাদের সঙ্গে মেশা যাবে না, এমনকি খাবার খাওয়াও হারাম’ এমন সব বিষয়। সেখানে রামায়ণ-মহাভারতের মতো বিষয় ছিল কল্পনাতীত।

এশিয়ার দেশ হিসেবে ইতিহাস ও সংস্কৃতিতে সম্পদশালী ভারত। ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে ভারতের সংস্কৃতি হিসেবে যোগ ব্যায়াম এবং আয়ুর্বেদিকের খুব সুনাম রয়েছে। শিক্ষার্থীদের এসব বিষয়েও জ্ঞান দিতে সৌদি পাঠ্যক্রমে এগুলো যুক্ত করা হবে।

রামায়ণ-মহাভারতের পাশাপাশি ভিশন ২০৩০ নামে শিক্ষা সংস্কারে যে উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি সরকার সেখানে ইংরেজি শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করা হবে।