ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে নিখোঁজের একদিন পর কাশপিয়া নামের আট বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। সদর ইউনিয়নের সৈয়দটুলা গ্রামের নোয়াহাটি এলাকার একটি ঝোপ থেকে বুধবার সকালে উদ্ধার হয় মরদেহ।

এ ঘটনায় আটক করা হয় শিশুর প্রতিবেশী রিমি আক্তারসহ তিনজনকে। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) কবির হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওসি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রিমি শিশুটিকে ৫০০ টাকায় বিক্রি করার কথা জানিয়েছেন।

কাশপিয়া সৈয়দটুলা গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে। স্বজনরা জানায়, গতকাল মঙ্গলবার বিকেল থেকে কাশপিয়ার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

ওসি কবির জানান, রিমির বাড়িতে কাশপিয়ার আনাগোনা ছিল। তাই তাকেই স্থানীয়রা প্রথমে সন্দেহ করে। রিমিকে আটক করা হলে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, ৫০০ টাকার বিনিময়ে হোসেনের কাছে কাশপিয়াকে বিক্রি করে দেন।

রিমির দেয়া তথ্যে হোসেনকে খুঁজতে গিয়ে তার বাড়ির পাশের ঝোপে কাশপিয়ার মরদেহ পাওয়া যায়। পরে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয় হোসেন ও তার সহযোগী জামিলকে।

ওসি কবির হোসেন বলেন, ‘কাশপিয়ার গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার কানে দুটি দুল ছিল, সেটি পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদের পর পুরো ঘটনা জানা যাবে।’