বরিশালের হিজলায় সিগারেট চুরির অভিযোগে এক যুবককে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

উপজেলার গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের কাউরিয়া বাজারে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা হয়।

নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের নাম নির্মল চন্দ্র দাস। তিনি পেশায় কাঠমিস্ত্রি। তার বাড়ি উপজেলার বড়জালিয়া ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামে।

আটক ব্যক্তির নাম আবদুল সালাম সরদার। তিনি কাউরিয়া বাজারের দোকানদার।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুই প্যাকেট সিগারেট চুরির অভিযোগ এনে নির্মলকে শনিবার বেলা ১১টার দিকে একটি সুপারি গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেন আবদুল সালাম। তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে আগামী সাত দিনের মধ্যে এলাকা ছাড়ারও হুমকি দেন ওই ব্যবসায়ী।

১৬ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, নির্যাতনের সময় নির্মলের স্ত্রী তাকে বাঁচাতে গেলে তাকেও ধাক্কা দেন সালাম।

নির্মলের স্ত্রী রূপা দাস জানান, সকালে নির্মলকে বাজারে ডেকে পাঠান সালাম। বাজারে যাওয়ার পরপরই দোকান থেকে দুই প্যাকেট সিগারেট চুরির অভিযোগে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করতে থাকেন।

তিনি বলেন, ‘মোর স্বামীরে বাঁচাইতে গেলে মোরে ধাক্কা দিইয়া হালাই দেয়। মোর স্বামী যদি চুরি হরে (করে) তারে ধইররা থানা-পুলিশে দিইয়ে দেত। হেরা বিচার হরত (করত)। মুই মোর স্বামীর নির্যাতনের বিচের চাই।’

হিজলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তারিকুল হাসান রাসেল জানান, নির্যাতনের ঘটনায় ভিডিও দেখে দোকানদার সালামকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।