দিনরাত ডেস্ক : সিরিয়ার বিদ্রোহী অধ্যুষিত ইদলিব শহরে ভয়াবহ বিমান হামলায় কমপক্ষে ২১ জন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় এক পর্যবেক্ষক দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বুধবার রাশিয়া এবং সিরিয়ার সকারি বাহিনী একযোগে এই বিমান হামলা চালায়।

গত ৮ বছর ধরে চলা সংঘাত বন্ধে গত রোববার তুরস্কের সঙ্গে এক সামরিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে রাশিয়া। তবে ওই চুক্তি সেখানকার সহিংসতা বন্ধে যে কোনোরকম প্রভাব ফেলেনি এই হামলার ঘটনায় সেটি স্পষ্ট।

হোয়াইট হ্যামলেট নামে পরিচিত সিরিয়ান সিভিল ডিফেন্স জানায়, বুধবার ইদলিবের আরিহা এলাকার এক সবজিবাজারে ওই বিমান হামলা চালানো হয়। এতে কমপক্ষে ২১ জন নিহত হয়েছেন। ওই হামলায় আহত হয়েছেন আরো ৮২ জন। হতাহতদের বেশিরভাগই বেসামরিক নাগরিক। হতাহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারী ও শিশু রয়েছে।

এদিকে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস (এসওএইচআর) জানিয়েছে, ইদলিবের ব্যস্ত আল হালে মার্কেটে বিমান হামলাটি চালানো হয়। একই সঙ্গে ইদলিব শহরের বাণিজ্যিক এলাকায়ও হামলা চালানো হয়েছে। এতে বেশ কিছু যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং কয়েকজন চালক নিহত হয়েছেন।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে মুস্তাফা নামের এক দোকান মালিক বলেন, কিছু মালপত্র আনার জন্য দোকানের বাইরে যাওয়ার পরই বিমান হামলার ঘটনা দেখতে পান তিনি।

চলতি মাসে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিবে অভিযান শুরু করেছে সিরিয়া সরকার। জাতিসংঘের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, হামলার ফলে গত ডিসেম্বরে ইদলিব থেকে পালিয়ে প্রায় ৩ লাখ মানুষ তুরস্কে আশ্রয় নিয়েছেন।