সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে আরও ৭৯ জনের শরীরে। এছাড়া এই চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেটে হাসপাতালে ও বাড়ি চিকিৎসাধীন আরও ১০৭ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। একইসময়ের মধ্যে বিভাগে নতুন করে কোনো করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়নি।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. সুলতানা রাজিয়া স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৯ জনের দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব শনাক্ত হয়েছে। এদের নিয়ে সিলেট বিভাগে মোট করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯ হাজার ১৯০ জনে। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ১২ হাজার ১৪৪ জন, সুনামগঞ্জে ২ হাজার ৬৫৬ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ২ হাজার ২০৫ জন ও মৌলভীবাজারে ২ হাজার ১৮৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে শনাক্ত হওয়া ৭৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ৬৭ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া বিভাগের সুনামগঞ্জে ৮ জন ও হবিগঞ্জে ৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

একইদিনে সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ১০৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন, যাদের ১০৬ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া একজন মৌলভীবাজার জেলার। এরমধ্য দিয়ে বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ১৭ হাজার ৩৭ জন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ১০ হাজার ৮৬৮ জন, সুনামগঞ্জে ২ হাজার ৫৫৪ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ১ হাজার ৭৫৩ জন ও মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৯৬৯ জন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা মোট রোগীর সংখ্যা ৩০৮ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ২৩৮ জন, সুনামগঞ্জে ২৬ জন, হবিগঞ্জে ১৮ জন এবং মৌলভীবাজারের ২৬ জন।

এদিকে সিলেটের চার জেলা মিলে ২১১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। যাদের ১৯৪ জনই সিলেট জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে, সুনামগঞ্জে ২ জন, হবিগঞ্জে ১১ জন ও ৪ জন মৌলভীবাজারে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া গত চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে ৮৫ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। যাদের ৭৯ জন সিলেট জেলার ও ৬ জন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা।