দিনরাত প্রতিনিধি, সুনামগঞ্জ : বাংলাদেশের জাতীয় খেলা হাডুডু। একসময়ে গ্রামবাংলার ঐতিহ্য সংস্কৃতির অংশ হিসেবে এ খেলাটি উৎসবমোখর পরিবেশে উপভোগ করা হতো। সময়ের পরিক্রমায় কালের গহ্বরে হারিয়ে যাচ্ছে কাবাডি বা হাডুডু খেলাটি। জাতীয় ঐতিহ্য রক্ষায় সুনামগঞ্জ পৌরসভার পাঠানবাড়ী যুব সমাজের উদ্যোগে উৎসবমোখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয় হাডুডু খেলা।

শনিবার দিনব্যাপী পাঠানবাড়ী মাঠে হাডুডু খেলা উপভোগ করতে ঢল লামে হাজার হাজার দর্শকের। দর্শকদের হাতের তালি ও ব্র্যা- পার্টির বাদ্যযন্ত্রের সুরের মূর্চনায় প্রতিদ্বনিত হয় খেলা প্রাঙ্গন।

বুরহান উদ্দিন ও আলী আমজদের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হাডুডু খেলায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জের খাইক্কারপার ও পৌরসভার পাঠানবাড়ী এবং মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের ৩৫ দলের শতাধিক খেলোওয়ার অংশ গ্রহণ করেন।

সুনামগঞ্জ ব্যবসায়ি সমিতির সাবেক সভাপতি আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে ও সমাজসেবক আব্দুল গফফার সঞ্চালনায় হাডুডু খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সুনামগঞ্জ পৌর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শেরগুল আহমদ।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, হাডুডু আমাদের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য। আজ যা বিদেশী সংস্কৃতির প্রভাবে হারিয়ে যাচ্ছে। গ্রামীণ ঐতিহ্য রক্ষা আর মাদকের কবল থেকে যুবসমাজকে ফিরাতে হাডুডু খেলা আয়োজন একটি সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত। এমন আয়োজনের জন্য আয়োজকদের স্বাগত জানান তিনি।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রভাষক নোয়াজ উদ্দিন, সমাজকর্মী ফারুক আহমদ, মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান, আলমগীর হোসেন।

উপস্থিত ছিলেন- আব্দুর রউফ, আলমগীর, মোশররফ হোসেন, কাউন্সিলার সুজাতা রানী, শাহজাহান খান, ওয়াসীম উদ্দিন, জাহিদুল ইসলাম তহুর, লুৎফুর, কালাম, আনোয়ার হোসেন, ইলিয়াস আলী, আব্দুর রকিব, তোফায়েল আহমদ, জুয়েল মিয়া, জাকির হোসেন উস্তার আলী, আব্দুর রহিম, সামছুল ইসলাম নোয়াজ উদ্দিন প্রমুখ।