হবিগঞ্জে আগ্নেয়াস্ত্রসহ আন্তঃজেলা সিএনজি চোর চক্রের মূল হোতা আবু তালেব ওরফে ল্যাংড়া তালেব ও তার ৫ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে ৪টি চোরাই সিএনজি, বিদেশী রিভালবার ও দুটি গুলি ও ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থান হতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ক্রাইম প্রিভেশন কোম্পানি-১ র‌্যাব-৯ সিলেটের সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ কামরুজ্জামান।

তিনি জানান, হবিগঞ্জ জেলাসহ সিলেট ও বি-বাড়িয়া এলাকার ড্রাইভারদের কাছে এক আতংকের নাম আবু তালেব ওরফে ল্যাংড়া তালেব। তার বিরুদ্ধে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন থানায় ১৪টিরও অধিক মামলা রয়েছে। বিষয়টি র‌্যাবের নজরে আসলে বুধবার ভোরে শায়েস্তাগঞ্জ পুরান বাজার এলাকা থেকে তালেবকে গ্রেফতার করা হয়।

পরে তার দেয়া তথ্যমতে মাধবপুর থানা এলাকা থেকে ১ সিএনজিসহ ২ জন ও বাহুবল এবং মৌলভী বাজার সদর থানা থেকে ৩টি চোরাই সিএনজিসহ অন্য ৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি আরো জানান, আসামীদের কাছ থেকে ৪টি চোরাই সিএনজি, ১টি বিদেশী রিভালবার ও দুটি গুলি ও ৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। আসামীদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলছে।

গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হল, হবিগঞ্জ জেলা শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার উবাহাটা গ্রামের মোঃ আব্দুল শহিদের পুত্র মোঃ আবু তালেব ওরফে ল্যাংড়া তালেব (৪৫), হবিগঞ্জ সদর উপজেলার মিডাপুর গ্রামের মৃত আবুল হকের পুত্র ফজলু মিয়া (৫০), রজবপুর গ্রামের দরবেশ আলীর পুত্র ফজলু মিয়া (৩৫), বাহুবল উপজেলার নন্দনপুর গ্রামের বাবুল মিয়ার পুত্র ইব্রাহিম আহমেদ সুজন (২২), নবীগঞ্জ উপজেলার বনগাও গ্রামের মৃত মায়া উদ্দিনের পুত্র বদরুজ্জামান (২৩) ও একই উপজেলার বুড়িনাও গ্রামের মৃত আফতাব উদ্দিনের পুত্র সাইদ মিয়া (৩৫)।