হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে এবার অনেক নতুন মুখ দেখা গেছে। নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ৫৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারী) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কোন ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোটগ্রহণ শেষে রাত ৯টার দিকে হবিগঞ্জ জেলা নির্বাচন অফিসে নির্বাচন অফিসার মো. সাদেকুল ইসলাম ফলাফল ঘোষনা করেন।

নির্বাচন অফিসের ফলাফল অনুযায়ী দেখা যায়, ১নং ওয়ার্ডে ১ হাজার ৪৭৯ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন মো. আবুল হাসিম (টিউব লাইট)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. আবুল কাশেম টেবিল ল্যাম্ব প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ১১৮ ভোট। এই ওয়ার্ডে টানা তিনবাররে কাউন্সিলর আবুল হাসিম।

২নং ওয়ার্ডে ১ হাজার ২১৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মো. জাহির উদ্দিন (টেবিল ল্যাম্ব)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. সিরাজুল ইসলাম জীবন (উটপাখি) পেয়েছেন ১ হাজার ১৩৩ ভোট।

৩নং ওয়ার্ডে ৮১২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন পান্না কুমার শীল (ডালিম)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি সত্যজিৎ দাস পাঞ্জাবি প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৭৭৫ ভোট।

৪নং ওয়ার্ডে ২ হাজার ২২২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মো. জুনায়েদ মিয়া (পাঞ্জাবি)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি সুমন দাস (উট পাখি) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৫০২ ভোট।

৫নং ওয়ার্ডে ১ হাজার ১৭০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন গৌতম কুমার রায় (টেবিল ল্যাম্ব)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি কৌশিক অচ্যার্য ( উটপাখি) প্রতিক নিয়ে পয়েছেন ৬৬০ ভোট।

৬নং ওয়ার্ডে ১ হাজার ১১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন টিপু আহমেদ (পানির বোতল)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শেখ নূর হোসেন (গাজর) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৯৮৯ ভোট।

৭নং ওয়ার্ডে ৯৮৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন শাহ সালাউদ্দিন আহমেদ (পানির বোতল)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. আব্দুল আউয়াল মজনু (উট পাখি) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৮৩৮ ভোট।

৮নং ওয়ার্ডে ১ হাজার ৫৮৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আলাউদ্দিন কুদ্দুস (উটপাখি)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. আলমগীর (পাঞ্জাবি) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ৫৪১ ভোট।

৯নং ওয়ার্ডে ৯১২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মো. সফিকুর রহমান সিতু (ব্ল্যাক বোর্ড)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শেখ মো. উম্মে আলী শামীম (পানির বোতল) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৭৬২ ভোট।