হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের কেবিন থেকে বীরেশ দাশ (৬৫) নামে এক বীর মুক্তিযোদ্ধার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, বিচানা থেকে পড়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বরাদ্দকৃত কেবিনের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বীরেশ দাশ শহরের শ্যামলী এলাকার বাসিন্দা।

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্ত¡বাবধায়ক ডা. হেলাল উদ্দিন জানান, বীরেশ দাশ গত ১ মার্চ কিডনিজনিত রোগসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। মঙ্গলবার রাতে পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালের বিচানায় তাকে একা রেখে বাসায় চলে যান। সকালে তার ছেলে বিজয় দাশ এসে দেখতে পান কেবিনের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা সদর থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দরজা ভেঙে দেখেন বিছানার নিচে বীর মুক্তিযোদ্ধার রক্তাক্ত লাশ পড়ে আছে।

মুক্তিযোদ্ধার ছেলে বিজয় দাশ বলেন, ‘তেমন সমস্যা না থাকায় রাতে তাকে মুক্তিযোদ্ধা ওয়ার্ডে রেখে বাসায় চলে যাই। সকালে এসে দেখি কেবিনের রুম বন্ধ। অনেক ডাকাডাকির পর সাড়া না পাওয়ায় বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা পুলিশকে খরব দেয়। পুলিশ দরজা ভাঙলে বেডের নিচে রক্তাক্ত লাশ পাই।’

হবিগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইদুর রহমান বলেন, ‘অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধার শরীরিক অবস্থা মুমূর্ষ ছিল। ধারণা করা হচ্ছে রাতে বিছানা থেকে পড়ে জখম হয়ে মারা গেছেন।’

তিনি বলেন, ‘মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলেই বিস্তারিত জানা যাবে।’